দলীয় প্রার্থীর সঙ্গে প্রচারে বেরিয়ে ফুটবল পায়ে মাঠে নেমে পড়লেন বাবুল

জন দেখেছেন : 15
0 0
পড়তে সময় লাগবে :4 মিনিট, 24 সেকেন্ড

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: একটা সময় কলকাতা পুরভোটে তাঁর টিকিট পাওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে বেশ জল্পনা শুরু হয়েছিল। এমনকি এও শোনা হচ্ছিল, কলকাতা পুরসভার মেয়র করাও হতে পারে তাঁকে। কিন্তু শুক্রবার তৃণমূল যে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে তাতে জায়গা হয়নি সদ্য বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়া বাবুল সুপ্রিয়র।

তবে দলের প্রার্থীদের জয়ী করতে প্রচারে নেমে পড়েছেনসাংস আসানসোলের প্রাক্তন সাংসদ। কলকাতা পুরসভার ৭০ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর তথা আসন্ন পুরভোটে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী অসীম বোসের সমর্থনে অভিনব প্রচারে নামলেন বাবুল সুপ্রিয়। রবিবার, ছুটির দিনের সকালে প্রাতঃভ্রমণকারি থেকে শুরু করে এলাকার মানুষ জনের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি ফুটবলও খেললেন বাবুল। অভিনব এই ফুটবল খেলায় অংশগ্রহণ করে অসীম বোসের প্রচারে এক প্রকার ঝড় তুলে দিলেন বাবুল সুপ্রিয়।

কলকাতা পুরসভার এই ৭০ নম্বর ওয়ার্ডটি মূলত অবাঙালি অধ্যুষিত হওয়ার কারণে স্নায়ুযুদ্ধে বিগত দিনে বিজেপি কিছুটা এগিয়ে থাকলেও, বিগত বিধানসভা উপনির্বাচনে অসীম ঘোষের নেতৃত্বে এই ওয়ার্ডে থেকে তৃণমূল কংগ্রেস অনেকটাই লিড বার করে আনতে সমর্থ হয়েছিল। রবিবার এই অভিনব প্রচারে এসে বিজেপির কড়া সমালোচনাও করলেন বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেছেন, ‘ভুল শরীরচর্চা করলে শরীরে উপকারিতার থেকে অপকারিতাই বেশি হয়। মানুষকে ভুল বোঝানো ও সমালোচনা করা ছাড়া বিজেপির আর কোনও কাজ নেই।’ কলকাতার মেয়র হিসাবে বিজেপির পক্ষ থেকে যে বাবুল সুপ্রিয়র নাম ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল, তার সমালোচনাও করেন বাবুল।

তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় নেতৃত্ব তাঁকে আসন্ন পুরভোটে যেভাবে কাজে লাগাবেন প্রচারে নামাবেন সেভাবেই তিনি কাজ করবেন ও প্রচার করবেন বলে জানিয়েছেন। পাশাপাশি, মিথ্যাচার ছেড়ে বিজেপিকে আত্মসমালোচনা করারও পরামর্শ দিয়েছেন প্রখ্যাত এই গায়ক। কেন তিনি বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে এসেছেন, রবিবার তা আরও একবার পরিষ্কার করে দিয়েছেন বাবুল। বলেছেন, ‘আমার প্রতি সুবিচার করা হয়নি। যেখানে হার্ট নেই সেখানে হাফ হার্টেড কাজ করব না বলেই চলে এসেছি। এখানে ভালোবাসা পেয়েছি এবং কলকাতার প্রতি একটা আলাদা ভালোবাসা আছে। সেটাই উজাড় করে দেব।’

তৃণমূল প্রার্থী অসীম বোস বলেছেন, ‘পুরভোটে বিরোধীরা নয় লড়াইটা নিজের সঙ্গে নিজের। ৭০ নম্বর ওয়ার্ডে বিগত দিনে বিরোধীরা ক্ষমতা দখল করার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু ৩৬৫ দিন, ২৪ ঘণ্টা মানুষের পাশে থেকে কাজ করে মানুষের আস্থা, ভরসা অর্জন করেছি। শুধুমাত্র এই এলাকার বাঙালিরাই নন, অবাঙালি মানুষদেরও আস্থা অর্জন করতে আমরা সমর্থ হয়েছি। পাশাপাশি দলনেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে আস্থা আমার ওপর রেখেছেন তার পূর্ণ মর্যাদা রাখতে আমার দায়িত্ব আরও বেড়ে গেল।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Next Post

মেয়েকে নিয়ে প্রচারে বেরিয়ে ফিরহাদ হাকিমের গলায় তারুণ্যের সুর

Sun Nov 28 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: সাতসকালেই মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে নিজের ৮২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে পুরভোটের প্রচার শুরু করলেন ফিরহাদ হাকিম। ফিরহাদ হাকিমকে কাছে পেয়ে উৎসাহিত এলাকার মানুষজনও। সাতসকালেই আবাল-বৃদ্ধ-বনিতারা তাদের কাছের মানুষ, কাজের মানুষের প্রতি স্নেহ, ভালোবাসা দেখাতে কার্পণ্য করেনি। প্রচারে নেমে ফিরহাদ হাকিম সাফ জানিয়ে দিলেন, […]