সময়সীমা শেষ, নূপুর শর্মার বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিশ জারি কলকাতা পুলিশের

জন দেখেছেন : 8
0 0
Read Time:4 Minute, 7 Second

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: নবীকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় বিজেপির প্রাক্তন মুখপাত্র নূপুর শর্মাকে হাজিরা দেওয়ার নোটিশ পাঠিয়েছিল কলকাতার আমহার্স্ট স্ট্রিট এবং নারকেলডাঙ্গা থানা। কিন্তু, তিনি এখনও হাজিরা না দেওয়ায় এবার তাঁর বিরুদ্ধে ‘লুক আউট’ নোটিশ জারি করল কলকাতার দুই থানা।

গত সোমবার কলকাতার দুই থানায় হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল নূপুর শর্মার। কিন্তু জীবনের ঝুঁকি রয়েছে বলে জানিয়ে কলকাতা পুলিশের কাছ থেকে চার সপ্তাহ সময় চেয়ে নিয়েছিলেন বিজেপির প্রাক্তন মুখপাত্র। ইমেইল করে তিনি জানিয়ে ছিলেন এই কথা।
চার সপ্তাহ সময় পেরিয়ে গেলেও তিনি হাজিরা না দেওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিশ জারি করেছে পুলিশ। নূপুরের বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে গোটা দেশে অশান্তি ছড়িয়ে পড়ে। তার আঁচ এসে পড়েছিল পশ্চিমবঙ্গেও। সাম্প্রদায়িক উস্কানি ও হিংসায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি দিল্লি, মহারাষ্ট্রতেও একাধিক অভিযোগ দায়ের হয়।

অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে হাওড়া ও মুর্শিদাবাদ জেলাও। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিক্ষোভকারীদের শান্তি বজায় রেখে থানায় থানায় গিয়ে বিজেপি নেত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানোর পরামর্শ দেন। তারপরেই কলকাতা সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় নুপুরের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়। নারকেলডাঙ্গা থানাতেও নূপুরের বিরুদ্ধে এফআইআর হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই গত ২০ জুনের মধ্যে নূপুরকে সশরীরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল নারকেলডাঙ্গা থানা। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪১ নম্বর ধারায় নূপুরকে নোটিশও পাঠানো হয়। তারই উত্তরে নূপুর হাজিরার জন্য চার সপ্তাহ সময় চেয়েছিলেন।

নূপুরের বিরুদ্ধে শান্তিভঙ্গের প্ররোচনা, হুমকি দেওয়া-সহ একাধিক অভিযোগ এনে কাঁথি থানায় এফআইআর দায়ের করেন তৃণমূলের সংখ্যালঘু সেলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক তথা আইনজীবী আবু সোহেল। নূপুরকে দ্রুত গ্রেফতার করা না হলে তিনি সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।
যদিও গত শুক্রবারই বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য নূপুর শর্মাকে তীব্র ভর্ৎসনা করেছে সুপ্রিম কোর্ট। তাঁকে গোটা দেশের কাছে ক্ষমাও চাইতে বলে দেশের সর্বোচ্চ আদালত। গোটা দেশজুড়ে যে অশান্তি চলছে, তার জন্য নূপুর শর্মাকেই একমাত্র দায়ী বলেও জানিয়ে দেয় আদালত। বিচারপতি সূর্যকান্ত বলেন, ‘আমরা বিতর্কিত সভাটি দেখেছি। আপনি যেভাবে কথাগুলো বলেছেন সেটাও দেখেছি। আপনি নিজে একজন আইনজীবী হয়ে যা করেছেন তা অত্যন্ত লজ্জার। আপনার সারা দেশের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Next Post

এক সঙ্গে ১৭ চাকরি পেয়ে তাক লাগিয়ে দিলেন বালির অরিজিৎ!

Sat Jul 2 , 2022
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: করোনা কালে চাকরির আকাল। গত দু’বছরে গোটা বিশ্বতো বটেই, ভারত এবং রাজ্যেও বহু মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। নতুন করে শিক্ষিত বেকারের সংখ্যাও বেড়েছে। এমন সময়ে এক সঙ্গে ১৭ চাকরি পেয়ে চমকে দিলেন অরিজিৎ রায়। হাওড়ার বালি ঘোষপাড়ার বাসিন্দা অরিজিৎ চুঁচুড়ার হুগলি ইঞ্জিনিয়ার […]