কেন্দ্রীয় ট্রাইব্যুনালের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন প্রাক্তন মুখ্যসচিব

জন দেখেছেন : 32
0 0
পড়তে সময় লাগবে :4 মিনিট, 41 সেকেন্ড

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: অবসরকালীন সুযোগ সুবিধা নিয়ে সেন্ট্রাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের প্রিন্সিপাল বেঞ্চের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ হলেন রাজ্যের অবসরপ্রাপ্ত মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামিকাল এই মামলার শুনানি হতে পারে।

গত ২২ অক্টোবর সেন্ট্রাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের বা ক্যাটের কলকাতা বেঞ্চ থেকে মামলা দিল্লিতে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রিন্সিপাল বেঞ্চ। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করেই আজ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন আলাপন বন্দোপাধ্যায়। গত ২৮ মে কলাইকুণ্ডায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পর্যালোচনা বৈঠকে হাজির হননি তিনি। কয়েক মিনিটের জন্য উপস্থিত থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তিনিও সেই বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে যান। ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ – এর ক্ষয়ক্ষতি সামলানোর জন্য ব্যস্ত থাকায় প্রধানমন্ত্রীর ওই সভায় যেতে পারেননি বলে জানিয়েছিলেন আলাপন।

কিন্তু তাঁর সেই জবাবে সন্তুষ্ট হয়নি কেন্দ্র। তার পরই তাঁকে দিল্লিতে নর্থ ব্লকে হাজির হতে বলে চিঠি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু হাজিরা না দিয়ে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। তার পর গত ১৬ জুন আলাপনের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে তদন্ত শুরু করে ডিপার্টমেন্ট অব পার্সোনেল অ্যান্ড ট্রেনিং। গত ১৮ অক্টোবর প্রাথমিক পর্যায়ের শুনানির জন্য তাঁকে দিল্লিতে ডেকে পাঠানো হয়। যদিও আলাপনবাবুর অনুরোধের সেই শুনানির দিন পিছিয়ে ২ নভেম্বর করা হয়েছে। এরই মধ্যে তিনি হাইকোর্টে আবেদন জানালেন। ন্যাশনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বৈঠকে উপস্থিত না হওয়ায় আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিপর্যয় মোকাবিলা আইন ভঙ্গের অভিযোগে কেন তাঁর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হবে না? ২০০৫ সালের বিপর্যয় মোকাবিলা আইনে কেন্দ্রের কর্মীবর্গ দফতরের পক্ষ থেকে সেই জবাব চেয়ে শোকজ করা হয় আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

এরপরই অবসর নেন তিনি।এরপর শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে ডিপার্টমেন্ট অব পার্সোনেল অ্যান্ড ট্রেনিং। এই অনুসন্ধান প্রক্রিয়া খারিজ করার জন্য সেন্ট্রাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের কলকাতা বেঞ্চে সম্প্রতি মামলা করেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। তার শুনানি ছিল গত ২২ অক্টোবর। এই মামলা কলকাতা থেকে দিল্লিতে সরানোর জন্য সেন্ট্রাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের প্রিন্সিপাল বেঞ্চে আবেদন করেছিল ডিপার্টমেন্ট অব পার্সোনেল অ্যান্ড ট্রেনিং। সেই আবেদনের ভিত্তিতে গত ২২ অক্টোবরই কলকাতা থেকে মামলা স্থানান্তরের নির্দেশ দেয় সেন্ট্রাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের দিল্লি বেঞ্চ। সেই নির্দেশকেই চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Next Post

কালীপুজোয় আতশবাজি নিষিদ্ধ করার আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টে মামলা, শুক্রবার শুনানি

Wed Oct 27 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: দুর্গাপুজোর পর থেকেই কলকাতা সহ রাজ্যে করোনার সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। সামনেই দীপাবলি। করোনার বাড়বাড়ন্তের জন্য গত বছরও কালী পুজোয় নিষিদ্ধ করা হয়েছিল আতশবাজির ব্যবহার। এবারও কি কালীপুজোয় আতশবাজির ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হবে! করোনাকালে আতশবাজিতে রোগীদের অসুস্থ হয়ে পড়ার দাবি করে এবার […]