'যারা রাস্তায় বসে আন্দোলন করছে, ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে তাঁদের চাকরি দিন', দাবি দিলীপ ঘোষের
Connect with us

রাজনীতি

‘যারা রাস্তায় বসে আন্দোলন করছে, ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে তাঁদের চাকরি দিন’, দাবি দিলীপ ঘোষের

Rate this post

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: বৃহস্পতিবার সল্টলেক সেণ্ট্রাল পার্কে প্রাতঃভ্রমণে এসে ফের রাজ্যের শাসক দল এবং মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগড়ে দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

বুধবার গোটা দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী Narendra Modi। সেই বৈঠকে বর্তমান করোনা পরিস্থিতি সহ দেশে ক্রমাগত দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি এবং জ্বালানির দর নিয়েও কথা বলেন মোদি। কিছু-কিছু রাজ্যের জ্বালানি তেলের উপর শুল্ক কমায়নি বলে সরাসরি নাম না করে বাংলা-মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশকে নিশানা করেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পরই বুধবার বিকেলে নবান্ন থেকে সরকারি বৈঠকে নাম না করে প্রধানমন্ত্রীকে সরাসরি তোপ দাগেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী Mamata Banerjee। তিনি বলেন, ”৯৮ হাজার কোটি টাকা কেন্দ্র না দিলে রাজ্য আগামী পাঁচ বছর পেট্রোল,ডিজেলের উপর ট্যাক্স নেবে না।”

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘কথাবার্তা বলার একটা সীমা থাকা উচিত’, দিলীপ ঘোষের নিশানায় মুখ্যমন্ত্রী

এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, ”আগে আপনি আপনার কর্মচারীদের পেনশন দিন, DA দিন। যারা রাস্তায় বসে আন্দোলন করছে ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে তাঁদের চাকরি দিন। কেন্দ্রীয় সরকার দিচ্ছে প্রয়োজনের থেকে বেশি। পশ্চিমবঙ্গকে বেশি দিচ্ছে রোজ খালি খাতা নিয়ে বসে থাকে নিজে কোন দায়িত্ব পালন করেন না।”

বগটুই হত্যাকাণ্ডে নিহত পরিবারদের চাকরি দেওয়ার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী যে মন্তব্য করেছেন, সেই মন্তব্যের পাল্টা তিনি বলেন, ”এতগুলো মার্ডার হল শুধু বগটুইতে কেন বিশেষ সম্প্রদায়ের লোক বলে হাঁসখালিতে কেন বলেও প্রশ্ন তোলেন তিনি?” পাশাপাশি তিনি বলেন, ”সারা পশ্চিমবঙ্গের জেলায় জেলায় খুন-ধর্ষণ হচ্ছে, তার দায়িত্ব কে নেবে? বিশেষ লোককে খুশি করবার জন্য না, যে তদন্ত হচ্ছে তাকে প্রভাবিত করার জন্য সেরকম উদ্দেশ্য আছে বলে রাতারাতি চাকরির ব্যবস্থা হয়েছে।

Advertisement

প্রধানমন্ত্রী একতরফা কথা বলেছেন রাজ্যের পাওনা ৯৮ হাজার কোটি টাকা বাকি এই গল্প দিয়ে কতদিন চলবে?”

আরও পড়ুন: মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরীকে নির্যাতনের অভিযোগ, কাঠগড়ায় মামা

”দুর্নীতির কথা হলেই পাওনা পেট্রোলের দাম কমানোর কথা হল এই পাওনা। এসব গল্প দিয়ে বেশিদিন চলবে না। রোজ পাওনা বেড়ে যাচ্ছে। কেন্দ্র সরকার পশ্চিমবঙ্গের সব ব্যাপারে বেশি টাকা দেয় নিজেদের কাম নেই কেন্দ্রের ওপরে করে খাচ্ছেন। পেনশন দিচ্ছেন না, DA দিচ্ছেন না। এখন পেমেন্ট বন্ধ হয়ে যাবে সেই দায়িত্ব পালন করুন । কেন্দ্রের বিরুদ্ধে এতদিন চিৎকার করেছেন রাস্তায় নেমেছেন।”

Advertisement