এবারও হচ্ছে না দুর্গাপুজোর কার্নিভাল, একাধিক বিধি-নিষেধ জারি করল নবান্ন
Connect with us

বাংলার খবর

এবারও হচ্ছে না দুর্গাপুজোর কার্নিভাল, একাধিক বিধি-নিষেধ জারি করল নবান্ন

Rate this post

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ : গত বছরের মতো এ বছরও দুর্গাপুজোর কার্নিভাল বাতিল করল রাজ্য সরকার। আজ রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এক নির্দেশিকা জারি করে এই কথা জানিয়েছেন মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী। রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর কলকাতার রেড রোডে দুর্গাপুজোর কার্নিভাল চালু করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই কার্নিভাল দেখার জন্য রাজ্যের গণ্ডি পেরিয়ে দেশ-বিদেশ থেকে প্রচুর মানুষ ভিড় জমান মহানগরীতে। কিন্তু করোনার কারণে গত বছর এই কার্নিভাল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রাজ্য সরকার।

এই বছরও রাজ্য পুরোপুরি করোনামুক্ত না হওয়ায় এই অনুষ্ঠান বাতিল করল রাজ্য সরকার। তাছাড়াও দুর্গাপূজা উপলক্ষে অযথা যাতে ভিড় না হয়, তা নিশ্চিত করার জন্য দুদিন আগেই রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। মঙ্গলবার নবান্ন থেকে জারি হওয়া এই নির্দেশিকায় কার্নিভাল বন্ধ রাখার পাশাপাশি পুজোয় একাধিক বিষয় নিয়ে বিধি-নিষেধের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। সই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, প্যান্ডেল খোলামেলা করতে হবে। প্যান্ডেলে ঢোকা ও বেরোনোর পথ আলাদা রাখতে হবে। দর্শনার্থীদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক এবং পুজো উদ্যোক্তাদের মাস্ক বিলি ও স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে।

প্যান্ডেলে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে কিনা তা তদারকির জন্য স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করতে হবে পুজো উদ্যোক্তাদের। এবারের পুজোয় প্যান্ডেল চত্বরে কোনও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করা যাবে না। শারদ সম্মানের জন্য একাধিক বিচারক নিয়ে প্যান্ডেলে প্রবেশ করা যাবে না। প্যান্ডেল চত্বরে দর্শনার্থীরা যাতে অযথা ভিড় না করেন, তার জন্য সোশ্যাল মিডিয়া ও সংবাদ মাধ্যমে প্রচার করতে হবে। জাঁকজমক করে পুজোর উদ্বোধন ও বিসর্জন অনুষ্ঠান করা যাবে না। এই নির্দেশিকায় ভার্চুয়ালি উদ্বোধনের পরামর্শও দেওয়া হয়েছে পুজো উদ্যোক্তাদের।

Advertisement

রাজ্য ও আদালতের জারি করা বিধি-নিষেধ পুজো কমিটি গুলো ঠিকমতো মানছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে মঙ্গলবার সকালে শহরের একাধিক বড় পুজো মণ্ডপ ঘুরে দেখলেন পুলিশ কমিশনার সৌমেন মিত্রর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল। সেই দলে ছিলেন পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (সদর) শুভঙ্কর সিংহ সরকার ও ডিসি (ট্র্যাফিক) অরিজিৎ সিংহ এবং দমকলের আধিকারিকেরাও।