স্বাভাবিক জীবনে ফিরে সরকারি চাকরি পেলেও আবার জঙ্গি দলে ফিরতে চান প্রাক্তন কেএলও নেতা

জন দেখেছেন : 20
0 0
পড়তে সময় লাগবে :2 মিনিট, 32 সেকেন্ড

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: একসময় ছিলেন কেএলও জঙ্গি দলের লেফটেন্যান্ট কামান্ডার নারায়ণ রায় তথা তরুণ থাপা। অনেকদিন জেল খাটার পর সরকারের সাথে রফা করে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন। রাজ্য সরকারও জঙ্গি দলের নেতাকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার সুযোগ হাতছাড়া করতে চায়নি। স্বাভাবিক জীবনে মানিয়ে নিতে যাতে অসুবিধা না হয় সেই কারণে সরকার তাঁকে হোমগার্ডের চাকরি দেয়।

কিন্তু খবর পাওয়া গিয়েছে, আর সরকারি চাকরিতে মন বসছে না। বালি তুলে ব্যবসা করার অনুমতি চাইছেন ওই কেএলও নেতা। এই বিষয়ে তিনি সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেছেন, তাঁকে যদি এই বিষয়ে কোনও সহযোগিতা না করা হয় তাহলে তিনি আবার অন্ধকার জগতে ফিরে যাবেন। তাঁর সাথে আরও যে সব কেএলও নেতা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছেন, তাঁরাও একই দাবি করেছেন বলে আজ ঘোষণা করেছেন ওই প্রাক্তন কেএলও নেতা। নারায়ণ রায় জানিয়েছেন, হোমগার্ডের চাকরি করে তিনি যা বেতন পান সেই টাকায় সংসার চলে না। তিনি করলা নদীতে বালি তোলার ব্যবসা করতেন।

কিন্তু সরকারি নিষেধাজ্ঞায় তা আর সম্ভব হচ্ছে না। ফলে তিনি ঘোষণা করেন, করলা নদীতে বালি তোলার লিজ এবং বিলিতি মদের দোকানের লাইসেন্স যদি না দেওয়া হয়, তাহলে তিনি আবার অন্ধকার জগতে ফিরে যাবেন। স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান এবং তৃণমূলের এসসি, এসটি সেলের জলপাইগুড়ি জেলার সভাপতি কৃষ্ণ দাস জানিয়েছেন, বিষয়টি প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে জলপাইগুড়ি জেলার প্রসাসক মৌমিতা গোদরা বলেছেন, ‘করলা নদীর লিজ টেন্ডার ডেকে হয়। কেউ চাইলেই তাকে দেওয়া যায় না। উনি যদি কিছু আবেদন করেন, তা সরকারি নিয়ম মেনেই করতে হবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Next Post

অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে

Sat Oct 23 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: স্বামী টাকা দাবি করলেই বাপের বাড়ি থেকে টাকা এনে দিতেন গৃহবধূ। কিন্তু এই ভাবে কতদিন পারবেন তিনি বাপের বাড়ি থেকে টাকা আনতে! স্বামীকে এবং শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে বুঝিয়ে উঠতে পারছিলেন না রীনা চৌহান মাহাতো। বোঝানোর চেষ্টা করলেই কপালে জুটতো মার। আর সেই মার […]