সপ্তমীতে সশরীরে দিল্লি গিয়ে হাজিরা দিতে হবে রুজিরাকে, জানিয়ে দিল আদালত
Connect with us

বাংলার খবর

সপ্তমীতে সশরীরে দিল্লি গিয়ে হাজিরা দিতে হবে রুজিরাকে, জানিয়ে দিল আদালত

Rate this post

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ : কয়লা পাচার মামলায় এবার আদালতে সশরীরে হাজিরা দিতেই হবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। বৃহস্পতিবার রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনলাইনে ভার্চুয়ালি হাজিরা দেওয়ার আবেদন খারিজ করে দিল দিল্লির পাতিয়ালা হাউজ কোর্ট। এদিনও শুনানিতে ভার্চুয়ালি হাজির ছিলেন অভিষেক-জায়া। শুনানিতে রুজিরা ভার্চুয়ালি হাজিরা দেওয়ার আবেদন জানালে এদিন তার তীব্র বিরোধিতা করেন ইডি’র আইনজীবী।

আদালতের নির্দেশ অমান্য করায় রুজিরার বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করার দাবি জানান কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আইনজীবী। দুই পক্ষের সাওয়াল জবাব শোনার পর আদালত রুজিরাকে আগামী ১২ অক্টোবর অর্থাৎ দুর্গাপুজোর সপ্তমীর দিন দুপুর দু’টোয় পরবর্তী শুনানিতে সশরীরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। এ দিনও আদালতে রুজিরা জানিয়েছিলেন, করোনা আবহে সন্তানদের রেখে তাঁর পক্ষে দিল্লি সফর করা সম্ভব নয়। কিন্তু আদালত সেই আবেদন খারিজ করে দিয়ে আগামী ১২ অক্টোবর তাঁকে সশরীরে হাজিরা দিতে নির্দেশ দেয়। কয়লা পাচার মামলায় গত পয়লা সেপ্টেম্বর রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লির দফতরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠিয়েছিল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।

কিন্তু তখনও করোনা আবহে সন্তানদের নিয়ে দিল্লি সফর করার ঝুঁকি না নিতে পারার কারণ দেখিয়ে হাজিরা এড়িয়ে গিয়েছিলেন। এবং কলকাতায় এসে জেরা করার অনুরোধ করেছিলেন। যদিও নির্দেশ পেয়ে গত ৬ সেপ্টেম্বর দিল্লিতে জামনগরে ইডি’র দফতরে গিয়ে দীর্ঘ ৯ ঘণ্টা জেরার সম্মুখীন হয়েছিলেন অভিষেক। তার ৪৮ ঘণ্টা যেতে না যেতেই ফের সমন পাঠানো হয়েছিল তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদককে। সেবার আর তিনি যাননি। এরপরও অভিষেক ও রুজিরাকে ইডি একাধিকবার তলব করলেও দিল্লিতে একবারও যাননি অভিষেক-রুজিরা। অসহযোগিতার অভিযোগ তুলে নিম্ন আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল ইডি। তারই ভিত্তিতে চিফ মেট্রোপলিটান আদালতের বিচারক রুজিরাকে সমন পাঠান।

Advertisement

তারপরই বারবার ইডির দিল্লিতে তলব করার বিরুদ্ধে আবেদন জানিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করেন অভিষেক ও রুজিরা। আদালতের কাছে রক্ষাকবচ চেয়ে তাঁরা আবেদন করেন, তাঁদের যেন কলকাতাতেই যতবার ইচ্ছা জিজ্ঞাসাবাদ করুক ইডি। এমনকি চাইলে যেন তাঁদের কলকাতা থেকেই গ্রেফতার করা হয়। তাতে তাঁদের কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু সেই আবেদনের শুনানিও সাময়িকভাবে স্থগিত রেখেছে দিল্লি হাইকোর্ট। তবে এদিন আদালত সশরীরে হাজিরা দিতে বলায় তৃণমূলের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরার চাপ বাড়ল বলেই মনে করছে অভিজ্ঞ মহল।