পুজোয় মদ বিক্রিতে রেকর্ড গড়ল রাজ্য!

জন দেখেছেন : 11
0 0
পড়তে সময় লাগবে :2 মিনিট, 49 সেকেন্ড

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়িত করে রাজ্যের অর্থের ভাণ্ডারে যখন টান পড়েছে ঠিক তখনই রাজ্যের ভাণ্ডারে কিছুটা অর্থের জোগান দিল সুরা প্রেমিরা! অবাক হচ্ছেন? কিন্তু এটাই বাস্তব। সরকারি তথ্য অনুযায়ী এবার দুর্গা পুজোর পাঁচদিনে রাজ্যে প্রায় ১০০ কোটি টাকার মদ বিক্রি হয়েছে। প্রত্যেক বছর পুজোর সময় মদের দকান খোলা থাকলেও দশমীর দিন মদের দকান বন্ধ থাকত। কিন্তু এই বছর ছিল ব্যতিক্রম। কারণ এই বছর পুজোর সময় দশমীর দিন মদের দোকান বন্দ রাখা হয়নি। ফলে পুজোর পাঁচদিন মদের দোকান খোলা ছিল।

আর সরকারের এক সিদ্ধান্তেই সুরাপ্রেমি আর মদের দোকানের মালিকদের খুশি করে লাভ ঘরে তুলল রাজ্য। প্রত্যেক মদ বিক্রিতে রাজ্য সরকারের ট্যাক্স ধার্য আছে। সুতরাং ১০০ কোটিতে ভালো টাকা কোষাগারে আসতে চলেছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। দশমীর দিন মদের দোকান খোলা রাখায় অনেকেই প্রতিবাদ করেছিলেন। তাঁদের মতে, ‘পুজোর পাঁচদিন মদের দোকান খোলা রেখে সরকার যুব সমাজকে নেশাগ্রস্থ হতে উৎসাহ যোগাচ্ছেন।’

আবার কেউ কেউ রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তে সরকারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাঁদের মতে, দোকান বন্ধ থাকলেই যে মদ খায় সে খাওয়া ছেরে দেবে এটা ঠিক নয়। যে খাওয়ার সে খাবেই। আর তাতে কালোবাজারি বেড়ে যাওয়ার সম্ভবনা বেশি। মদের দোকান খোলা রাখার ফলে কালোবাজারি কিছুটা রোখা গেছে বলে মনে করছেন তাঁরা। সরকারি হিসেবে পুজোর পাঁচদিন রাজ্যের জেলা গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি মদ বিক্রি হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর এবং পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায়। সরকারি তথ্য অনুযায়ী পুজোর পাঁচ দিনে ২৮ কোটি টাকার মদ বিক্রি হয়েছে এই দুই জেলায়। এটাকে সরকারের পরিকল্পনার ফসল বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Next Post

উত্তরবঙ্গের জেলাগুলোতে জারি হল বাড়তি সতর্কতা

Wed Oct 20 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: গত মঙ্গলবার থেকে পাহাড় এবং সমতল মিলিয়ে উত্তরবঙ্গের সমস্ত জেলায় ভারী বৃষ্টির ফলে উত্তরবঙ্গ জুড়ে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ফলে একদিকে যেমন জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে অন্যদিকে মানুষের মধ্যে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। প্রশাসনের তরফ থেকেও বাড়তি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। পাহাড়ে […]