কোচবিহারে একই পরিবারের তিন জনের মৃত্যু ঘিরে রহস্য

জন দেখেছেন : 16
0 0
পড়তে সময় লাগবে :2 মিনিট, 57 সেকেন্ড

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: একই পরিবারের তিন জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের গুঞ্জবাড়ি এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, মৃত ব্যক্তি উৎপল বর্মন কোচবিহার এবিএন শীল কলেজের অস্থায়ী শিক্ষক। হাত হেডফোন দিয়ে বাঁধা অবস্থায় তাঁর ঝুলন্ত দেহ ঘরে পাওয়া যায়।

তাঁর স্ত্রী ও সন্তান পাশের ঘরে মৃত অবস্থায় পড়ে ছিলেন। ঘটনার খবর পেয়েই কোচবিহার কোতোয়ালি থানার আইসি সহ বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। ভিডিওগ্রাফারের উপস্থিতিতে দেহগুলিকে উদ্ধার করে কোচবিহারের এমজেএন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত জানুয়ারি মাস থেকে গুঞ্জবাড়ীর উৎপল বর্মন তাঁর স্ত্রী ও পুত্র সন্তানকে নিয়ে এই বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। তাঁদের গ্রামের বাড়ি দিনহাটার গোসানিমারি এলাকায়। বাড়িওয়ালা জানিয়েছেন, গত মঙ্গলবার তাঁদের ফোন করে গ্রামের বাড়ি যাবেন বলে জানান উৎপল বর্মন।

এরপর তাঁদের সাথে আর কোনও রকম কথা হয়নি। তবে আত্মীয়-স্বজনরা তাঁর মোবাইল বন্ধ পাওয়ায় খোঁজখবর নিতে শুরু করে। বুধবারও উৎপল বর্মনের বেশ কয়েকজন আত্মীয় তাঁর এই ভাড়া বাড়িতে খোঁজ করতে এসে ফিরে যান। ঘরে সামনে থেকে তালা দেওয়া ছিল। অবশেষে বৃহস্পতিবার তাঁর এক আত্মীয় বিষয়টি পুলিশকে জানায়। পুলিশ এসে সামনের দরজার তালা ভেঙ্গে ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করলে দেখে ভিতর থেকেও ঘর বন্ধ করা রয়েছে। এরপরই দরজা ভেঙে পুলিশ ভিতরে ঢুকতেই দেখে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে উৎপলবাবুর দেহ। এবং তাঁর স্ত্রী ও পুত্র বিছানায় পড়ে রয়েছে। কোনও রকম মানসিক অবসাদে তারা ভুগছিলেন কিনা সে বিষয়টি পরিষ্কার হয়নি। এই নিয়ে কিছু বলতে পারছেন না উৎপল বাবুর পরিবার, আত্মীয়-স্বজনরাও। তবে কীভাবে এই ঘটনা ঘটল, তা নিয়ে একটা রহস্য দানা বেঁধেছে। গোটা ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Next Post

রেলকে বেলাইন করে ৪০ বছর পর কলকাতা লিগ চ্যাম্পিয়ন মোহনবাগান

Fri Nov 19 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: গত চার দশক ধরে দর্শকরা মাঠে এসেছেন আর হতাশা নিয়েই বাড়ি ফিরেছেন। তবু ‘অলীক’ স্বপ্ন দেখা ছাড়েননি সর্মথক থেকে শুরু করে কর্মকর্তারাও। অবশেষে ৪০ বছর পর তাদের সেই স্বপ্ন বাস্তব হল। ৪০ বছর পর কলকাতা লিগ চ্যাম্পিয়ন হল মহমেডান স্পোর্টিং ক্লাব। বৃহস্পতিবার […]