হিংসা প্ররোচনা মামলায় কলকাতা হাইকোর্টে বড়সড় স্বস্তি পেলেন মিঠুন চক্রবর্তী
Connect with us

বাংলার খবর

হিংসা প্ররোচনা মামলায় কলকাতা হাইকোর্টে বড়সড় স্বস্তি পেলেন মিঠুন চক্রবর্তী

Rate this post

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: গত বিধানসভা নির্বাচনে প্ররোচনামূলক মন্তব্য করে হিংসায় মদত দেওয়ার অভিযোগের মামলায় বড়সড় স্বস্তি পেলেন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। এই মামলায় আরও তদন্তের ওপর স্থগিতাদেশ জারি করার পাশাপাশি মিঠুন চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে আর কোনও পদক্ষেপ নেওয়া যাবে না বলে বৃহস্পতিবার জানিয়ে দিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি কৌশিক চন্দ।

সেই সঙ্গে মানিকতলা থানায় দায়ের হওয়া মামলাটিও খারিজ করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানিতে বিচারপতি কৌশিক চন্দের সিঙ্গেল বেঞ্চ জানিয়েছে, ‘বর্তমানে অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। তাঁরা অনেকেই সাধারণ মানুষের মনোরঞ্জন এবং অনুরোধে সিনেমার ডায়লগ বলে থাকেন। যাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, সেই মিঠুন চক্রবর্তীও এই কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। তাই আদালত তাঁর মন্তব্যের মধ্যে কোনও হিংসা খুঁজে পায়নি।’ একুশের বিধানসভা ভোটের মুখে গত মার্চে ব্রিগেডের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগদান করেন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী।

সেই সভাতেই তিনি তাঁর সিনেমার ‘‘মারব এখানে, লাশ পড়বে শ্মশানে’, ‘জাত গোখরো’ এর মতো জনপ্রিয় সংলাপগুলো বলেন। ভোট মিটতেই, তৃণমূলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় যে মিঠুন চক্রবর্তীর এই সংলাপগুলো ভোটে হিংসার প্ররোচনা যুগিয়েছে। সেই অভিযোগে মানিকতলা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়। যদিও মিঠুন চক্রবর্তী জানিয়েছিলেন, জনতার অনুরোধেই তিনি তাঁর সিনেমার এই জনপ্রিয় সংলাপগুলো বলেছিলেন। এর পিছনে তাঁর অন্য কোনও উদ্দেশ্য ছিল না। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ালে মিঠুন চক্রবর্তী তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা এই মামলা খারিজ করে দেওয়ার জন্য কলকাতা হাইকোর্টের কাছে আবেদন করেন। বৃহস্পতিবার ‘মহাগুরুর’ সেই আবেদনকেই মান্যতা দিল আদালত।

Advertisement