মাভি- ফার্গুসনের দুরন্ত বোলিং, মরণ-বাঁচন ম্যাচে রাজস্থানকে হারিয়ে প্লে-অফে নাইটরা

Rate this post

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ : রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবারের ম্যাচটা ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্সের কাছে ডু অর ডাই ম্যাচ। আর সেই ম্যাচেই রাজস্থানকে ৮৬ রানে হারিয়ে দিয়ে চলতি আইপিএলের প্লে-অফে ওঠা প্রায় নিশ্চিত করে ফেলল নাইটরা। এই মুহূর্তে ১৪ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট কলকাতার। শুক্রবার শেষ ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স জিতলেও কেকেআরের রানরেটের থেকে অনেকটাই দূরে থাকবে। তাই রোহিত শর্মাদের প্লে-অফে যাওয়ার রাস্তা প্রায় বন্ধই হয়ে গেল। কলকাতার নেট রানরেট যেখানে +০.৫৮৭, সেখানে মুম্বইয়ের রানরেট -০.০৪৮।

টসে জিতে প্রথমে কেকেআরকে ব্যাট করতে পাঠিয়েছিলেন রাজস্থানের অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন। তবে এদিন শুরুটা সাবধানী ভাবেই করেছিলেন নাইটদের দুই ওপেনার শুভমন গিল ও বেঙ্কটেশ আইয়ার। কোন উইকেট না হারালেও প্রথম ছয় ওভারে ওঠে মাত্র ৩৫ রান। রানরেটেও ছিল ছ’য়ের নিচে। কিন্তু সময় যত গড়াল ততই যেন ছন্দে ফিরলেন দুই নাইট ওপেনার। রানের গতিও বাড়ল। গিল-আইয়ারের ওপেনিং পার্টনারশিপে উঠল ৭৯ রান। ৩৫ বলে ৩ বাউন্ডারি ও জোড়া ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৩৮ রান করা বেঙ্কটেশকে ফিরিয়ে নাইট শিবিরের প্রথম ধাক্কা দেন রাহুল তেওয়াটিয়া। গত কয়েকটি ম্যাচে দুরন্ত ফর্মে থাকার নিতীশ রানা এদিন দলকে খুব বেশি সাহায্য করতে পারেননি।

৫ বলে একটি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ১২ রান করে আউট হন। তবে শুভমন গিল ও রাহুল ত্রিপাঠী মিলে নাইটদের বড় রান তোলা নিশ্চিত করে দেন। যদিও নিজের অর্ধশত রানের পরই আউট হন গিল। ৪৪ বলে ৪ বাউন্ডারি ও দুই ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৫৬ রান করে মরিসের শিকার হয়ে ফেরেন। এরপর রাহুল (১৪ বলে ২১), দীনেশ কার্তিক (১১ বলে ১৪ অপরাজিত) ও অধিনায়ক ওইন মর্গ্যানদের (১১ বলে অপরাজিত ১৩) সৌজন্যে ৪ উইকেটে ১৭১ রান তোলে কেকেআর। এই মরসুমে শারজায় এটাই কোনও দলের সর্বোচ্চ রান। শারজার উইকেটে রাজস্থানের কাজটা যথেষ্ট কঠিন ছিল। কিন্তু কেকেআর বোলারদের দুরন্ত বোলিং রাজস্থানের বিপদ আরও বাড়িয়ে দেয়। প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই ছন্দে থাকা রাজস্থানের ব্যাটসম্যান যশস্বী জয়সওয়ালকে (০) ফিরিয়ে দেন শাকিব আল-হাসান।

পরের ওভারে অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসনকে (১) ফিরিয়ে দেন শিবম মাভি। এরপর রাজস্থান ব্যাটসম্যানদের যাওয়া-আসা চলতে থাকল। শিবম মাভি ও লকি ফার্গুসনের বোলিংয়ের সামনে কোনও বড় পার্টনারশিপই করতে পারনি রাজস্থানের ব্যাটসম্যানরা। ১৬.১ ওভারে ৮৫ রানেই গুটিয়ে যায় রাজস্থান। শিবম দুবে (১৮) এবং রাহুল তেওয়াটিয়া (৪৪) ছাড়া কোনও ব্যাটসম্যানই দু’অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেননি। কলকাতার হয়ে চার উইকেট নিয়ে ম্যাচের সেরা হয়েছেন শিবম মাভি। তিন উইকেট নিয়েছেন লকি ফার্গুসনের।

সংবাদটি শেয়ার করুন
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Next Post

ঝাড়গ্রামে বাঘ আতঙ্ক! মিনি চিড়িয়াখানার খাঁচা থেকেই পালাল চিতাবাঘ! তল্লাশিতে নামেছে বনদফতর

Fri Oct 8 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ : ঝাড়গ্রামে হঠাৎই বাঘ আতঙ্ক! ঝাড়গ্রামের মিনি চিড়িয়াখানার খাঁচা থেকে বৃহস্পতিবার পালাল চিতাবাঘ। জানা গিয়েছে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ খাঁচা থেকে নিখোঁজ হয়ে যায় বাঘটি। খবর ছড়িয়ে পড়তেই ঝাড়গ্রাম এবং তার পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। অন্ধকারের মধ্যেই বাঘের খোঁজে […]

আপনার পছন্দের সংবাদ