এখানে রাম, লক্ষণ, হনুমান, লব, কুশ সহযোগে পুজো গ্রহণ করেন মা লক্ষ্মী!

Rate this post

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: সারা পশ্চিমবঙ্গের মানুষ যখন শারদীয়া দুর্গা উৎসবে মেতে ওঠেন ঠিক তেমনই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট ব্লকের গোপীনগর গ্রামের বাসিন্দারা মাতেন লক্ষ্মীর আরাধনায়। গোটা রাজ্য জুড়েই চলছে লক্ষ্মী আরাধনার প্রস্তুতি। তবে গোপীনগরের লক্ষ্মী অন্যদের থেকে একটু আলাদা। গোপীনগর গ্রামের মানুষ মা লক্ষীকে সীতা রূপে কল্পনা করেন। এখানে মা লক্ষ্মী সপরিবারে অর্থাৎ রাম, লক্ষণ, হনুমান, লব, কুশ সহযোগে পুজো গ্রহণ করেন। প্রতি বছর এই গ্রামে লক্ষ্মীপুজো উপলক্ষে বসে বিশাল মেলা। আয়োজন করা হয় যাত্রা পালার।

কিন্তু করোনার কারণে বিগত বছর এবং এই বছর এই গ্রামের মানুষ মেলা এবং যাত্রাপালা আয়োজন করতে পারছে না। তাই কিছুটা হলেও মন খারাপ এই অঞ্চলের মানুষের। এই মন খারাপের মাঝেও করোনা সতর্কতাকে মান্যতা দিয়েই গ্রামের মানুষ লক্ষ্মী দেবীর আরাধনায় মেতে উঠবেন। পুজো কমিটির কোষাধ্যক্ষ মানিক ঘোষ জানিয়েছেন, ‘আমাদের এই পুজো ৭২ বছরের পুরনো। আমাদের এখানে তো দুর্গাপুজো হয় না। তাই গ্রামের মানুষ এই লক্ষ্মী পুজোতেই আনন্দ করে। প্রতি বছর মেলা বসে, যাত্রাগান হয়। কিন্তু করোনার জন্য গত বছর থেকে সেসব কিছু করা সম্ভব হচ্ছে না। এবারও করোনা বিধি মেনেই পুজো হবে। তাই গ্রামবাসীদের মন খারাপ। তবে পুজোয় সকলেই আসবেন। কিন্তু ভিড় করতে বারন করা হয়েছে। বড় প্যান্ডেল তৈরি করা হচ্ছে। নিয়ম মেনেই সকলে পুজোয় আনন্দ করবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Next Post

এই রাজ্যেই রয়েছে দেশের প্রথম সুরা মিউজিয়াম 'অল অ্যাবাউট অ্যালকোহল

Wed Oct 20 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ : মিউজিয়াম কথাটা শুনলেই আমাদের প্রথমেই মনে আসে ইতিহাসের সাক্ষী বহনকারী প্রাচীন পুরা ও প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের সংগ্রহশালাকেই। তবে এই ধারণাটা এবার কিছুটা বদলে ফেলার সময় এসে গিয়েছে। শুধু প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক জিনিসপত্রই নয়, এবার মিউজিয়ামে পাওয়া যাবে মদ! দেশে প্রথম তৈরি হল সুরা […]

আপনার পছন্দের সংবাদ