প্রার্থী তালিকা নিয়ে অসন্তোষ! বিজেপির ভার্চুয়াল নির্বাচনী বৈঠক ছেড়ে বেড়িয়ে গেলেন রূপা!

জন দেখেছেন : 12
0 0
পড়তে সময় লাগবে :5 মিনিট, 3 সেকেন্ড

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: গত বিধানসভা নির্বাচনে বহু প্রত্যাশা নিয়ে ঝাঁপিয়েছিল বিজেপি। কিন্তু ভোটের ফল হতাশ করেছে পদ্ম শিবিরকে। দু’শোর বেশি আসন নিয়ে ক্ষমতায় আসে তৃণমূল। বিজেপি আটকে যায় ৭৭-এই।

কিন্তু ভোটের ফল প্রকাশের পর থেকেই একের পর এক বিধায়ক দল ছেড়ে শাসক দল তৃণমূলে যোগ দিতে শুরু করেছেষ। এর পরে উপনির্বাচনেও ভরাডুবি হয় বিজেপি’র। লড়াইয়ে টিকে থাকার জন্য কলকাতা পুরসভা ভোটকেই এখন পাখির চোখ করেছে গেরুয়া শিবির। সেই মতো গত সোমবারই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে বিজেপি। প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর বিভিন্ন মহল থেকে বিভিন্ন স্তরের নেতারা ক্ষোভ উগড়ে দিচ্ছেন। সেই ক্ষোভকে সামাল দেওয়ার জন্য একটি ভার্চুয়াল মিটিংয়ের আয়জন করেছিল রাজ্যে বিজেপি। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার, সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী সহ অন্যান্য নেতা এবং প্রার্থীরা।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ও। কিন্তু বৈঠকের মাঝপথে আচমকা তির্যক মন্তব্য করে বেড়িয়ে যান বিজেপির রাজ্যসভা সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। জানা গিয়েছে, বৈঠকের মধ্যেই আচমকাই মেজাজ হারান তিনি।চেঁচিয়ে বলেন, “ডাকেন কেন, এমন ভাটের বৈঠকে”। এই কথা বলেই তিনি বৈঠক ছেড়ে বেড়িয়ে যান। জানা গিয়েছে, প্রার্থী নির্বাচন নিয়ে অসন্তোষের জন্যই তিনি বেড়িয়ে যান। বেশ কিছু ওয়ার্ডে তাঁর প্রার্থী পছন্দ হয়নি বলেই বিজেপি সূত্রে খবর। ৮৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি কাউন্সিলার ছিলেন তিস্তা বিস্বাস। কিছুদিন আগেই এক পথ দুর্ঘটনায় মারা যান তিনি। অনেকেই আশা করেছিলেন এবার প্রার্থী করা হবে তিস্তার স্বামী গৌরব বিশ্বাসকে। কিন্তু দেখা যায় তিস্তার স্বামীকে প্রার্থী করা হয়নি।

প্রার্থী করা হয়েছে রাজর্ষী লাহিড়ীকে। সেই কারণেই রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘রাগ’ বলে মনে করা হচ্ছে। পরে তা প্রমাণিতও হয় সোশ্যাল মিডিয়ায় রূপা গঙ্গোপাধ্যায় একাধিক প্রতিক্রিয়ায়। এই মুহূর্তে দিল্লিতে রয়েছেন রূপা। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি প্রকাশ্যে জানিয়ে দেন, ৮৬ নম্বর ওয়ার্ডে প্রার্থী হিসেবে তিনি গৌরবকেই সমর্থন করবেন। একই সঙ্গে তিস্তার মৃত্যু নিছক দুর্ঘটনা নয়, খুন বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন। এছাড়াও টাকা নিয়ে বিজেপির প্রার্থী তালিকা তৈরি হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। যদিও পরে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সেই সমস্ত বিতর্কিত পোস্ট মুছে দিয়েছেন তিনি। দলের চাপের এটা করেছেন বলে মনে করা হচ্ছে। এদিকে, নির্দল প্রার্থী হিসেবে ৮৬ নম্বর ওয়ার্ডে নির্দল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন গৌরব বিশ্বাস।

বিজেপি সূত্রে খবর, গৌরবের পিছনে রয়েছে দলেরই সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের সমর্থনই নির্দল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন গৌরব। রূপার সমর্থনের কথা মেনেও নিয়েছেন গৌরবও। এদিকে এই ডামাডোলের জেরে মুরলিধর সেন লেনে বিজেপির রাজ্য দফতরে সাংবাদিকদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হল। দফতরের দোতালায় ওঠার সিঁড়ির মুখে বসানো হয়েছে গ্রিলের দরজা। কলকাতা পুরভোটের প্রার্থী তালিকা নিয়ে যেভাবে প্রতিদিন অসন্তোষ হচ্ছে, সেই সমস্ত ভেতরের খবর যাতে বাইরে বেরিয়ে না আসে, সেই জন্যই এই ঘেরাটোপ বলে মনে করা হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Next Post

স্কুল খুলতেই এক শিক্ষিকা করোনা পজেটিভ! সাত দিন বন্ধ স্কুল

Wed Dec 1 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: করোনা অতিমারির জন্য গত ২০ মাস স্কুল বন্ধ ছিল। ফলে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনা। এর পর অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে পড়াশোনা চালু হয়। কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় আবার স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। ফলে গত ১৬ নভেম্বর থেকে স্কুল খুলেছে। […]