অভিষেকের ত্রিপুরা সফরের আগেই করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করল বিপ্লব দেবের সরকার
Connect with us

বাংলার খবর

অভিষেকের ত্রিপুরা সফরের আগেই করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করল বিপ্লব দেবের সরকার

Rate this post

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর তিনি যতবারই ত্রিপুরা গিয়েছেন ততবারই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে প্রতিবেশী রাজ্য। আর সেই নিয়ে উত্তপ্ত হয়েছে তৃণমূল ও বিজেপি শিবির। আগামীকাল অর্থাৎ রবিবার আগরতলায় জনসভা করার কথা রয়েছে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

তার আগেই নতুন নির্দেশিকা জারি করল ত্রিপুরার বিপ্লব দেবের বিজেপি সরকার। ত্রিপুরা সরকারের পক্ষ থেকে শুক্রবার গভীর রাতে একটি নির্দেশিকা জারি করে বলা হয়েছে, ২৬ অক্টোবরের পর থেকে যে সব রাজ্যের একাধিক জেলায় সংক্রমণের হার পাঁচ শতাংশের বেশি, সেই সব রাজ্যের কোনও ব্যক্তি বিমানে, রেল কিংবা সড়ক পথে ত্রিপুরায় এলে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করা কোভিড টেস্টের নেগেটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক। এবং নির্দেশিকায় যে সব রাজ্যের নাম উল্লেখ করা হয়েছে, তার মধ্যে কেরল, হিমাচল প্রদেশ, সিকিম, মণিপুর, মিজোরাম, মেঘালয়, অরুণাচল প্রদেশ, নাগাল্যান্ডের সঙ্গে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের নামও।

তৃণমূল-সহ রাজনৈতিক মহলের ধারণা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ত্রিপুরা আসা আটকাতেই বিপ্লব দেব সরকারের এটা নয়া চাল। এই নিয়ে ত্রিপুরার বিজেপি সরকারকে তীব্র আক্রমণ করে পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ বলেছেন, ‘বিপ্লব দেবের সরকার ভয় পেয়েছে। নির্দেশিকায় রাজ্যের তালিকা থেকে দিল্লি, অসম বাদ কেন? অভিষেককে ভয় পাচ্ছে। ওকে আটকাতে সব রকম চেষ্টা করেছিল। গোটা শহরে ১৪৪ ধারা কার্যকর করেছিল। এখন সভা হচ্ছে এবং সভায় প্রচুর মানুষ আসছে দেখে করোনাকে ঢাল করতে শুরু করেছে।’ তবে এখনও পর্যন্ত এই নিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

Advertisement