জঙ্গলে গৃহপালিত পশুদের খুঁজতে বাঁকুড়ার জয়পুরের গ্রামবাসীদের ভরসা ‘ঠরকা’

জন দেখেছেন : 10
0 0
Read Time:2 Minute, 0 Second

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ : জয়পুররের গভীরে জঙ্গলে চড়ে বেড়ায় স্থানীয় গ্রামবাসীদের গরু, ছাগল, মহিষ। এই সব গৃহপালিত পশু জঙ্গলে যাতে হারিয়ে না যায়, যাতে সহজেই তাদের খুঁজে বের করা যায়, সেজন্য তাদের গলাতে বেঁধে দেয়া হয় বিশেষ এক ধরনের বাদ্যযন্ত্র।

আদিবাসী সমাজের মানুষ-জন এই বাদ্যযন্ত্রের নাম দিয়েছেন ‘ঠরকা’। সকাল হলেই বাঁকুড়ার জঙ্গল মহল এলাকায় এই ঠরকা গরু, মহিষ, ছাগলের গলাতে বেঁধে গোয়ালঘর থেকে ছেড়ে দেন তাঁরা। আর গৃহপালিত পশুরা চড়তে চড়তে চলে যায় শাল, মহুয়ার গভীর জঙ্গলে। মূলত বাঁশ, স্টিলের গ্লাস, অ্যালুমিনিয়াম ও কাঠ দিয়ে এই ‘ঠরকা’ তৈরি করা হয়। কিন্তু জয়পুরের আদিবাসী এলাকার মানুষ-জন বাঁশ দিয়ে তৈরি করেছেন এই ‘ঠরকা’। আর যত সন্ধ্যে হয় ততই এই ঠরকার আওয়াজের মিষ্টতা বাড়ে বলে জানিয়েছেন গ্রামেরই বাসিন্দা দুলু মুর্মু।

বাঁকুড়ার এই জঙ্গল মহলে রয়েছে হাতির যাতায়াত। তাই কিছু সংখ্যক মানুষ-জন অবশ্য হাতি ও বুনো শুয়োরের আক্রমণের হাত থেকে বাঁচার জন্যও ব্যাবহার করছেন এই ‘ঠরকা’। তাঁরা এই আওয়াজ শুনে সহজেই বুঝতে পারেন এটা হাতির আওয়াজ নয়। তাঁদের গৃহপালিত গরু, মহিষ, ছাগলের উপস্থিতির জানান দেয় এই ‘ঠরকা’। তাই সহজেই তাঁদের গৃহপালিত পশুদের খুঁজে বের করে নেন গ্রামবাসীরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Next Post

ইউটিউব দেখে ঘরেই সন্তানের জন্ম দিলেন কিশোরী! ঘুণাক্ষরেও টের পেলেন না বাবা-মা

Fri Oct 29 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: ঘরে বসেই ইউটিউব দেখে সন্তানের জন্ম দিলেন ১৭ বছরের এক কিশোরী! অথচ কিছুই বুঝতে পারলেন না পরিবারের লোকজন। অবশেষে মেয়ের ঘরের ভেতর থেকে বাচ্চার কান্নার শব্দ ভেসে আসতেই প্রকাশ্যে এল সবকিছু। দরজা খুলে ভিতরে ঢুকতেই সদ্যোজাত কোলে মেয়েকে দেখেই চক্ষু চড়কগাছ পরিবারের […]