মদ্যপ স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীকে খুনের চেষ্টার অভিযোগ

Rate this post

বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজ: স্বামী দিনরাত নেশা করেন। মদ্যপ অবস্থায় থাকেন, কিন্তু কোনও কাজ করেন না। সংসার চালানোর কোনও খেয়াল নেই। এই অবস্থায় হাত-পা গুটিয়ে না থেকে বাধ্য হয়ে লোকের বাড়িতে রান্নার কাজ নেন স্ত্রী।

আর এখানেই বাঁধে বিপ্ততি। মদ খাওয়ার জন্য প্রায় স্ত্রীর কাছে টাকা দাবি করেন স্বামী। আর টাকা না পেলেই মারধর করেন। স্বামী মারধর করলেও স্ত্রী হাসি মুখেই মেনে নিচ্ছিলেন। ভাবছিলেন একদিন হয়তো সব ঠিক হয়ে যাবে। এই মারধর যে বাড়তে বাড়তে খুন করার সাহস জোগাবে তা ঘুণাক্ষরেও টের পাননি দ্রৌপদী রায় বয়স, ৪৮ বছর। ঘটনাটি উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জের রুপাহারে। ওই মহিলার মদ্যপ স্বামী বিমল রায় পলাতক। এবং স্ত্রী দ্রৌপদী রায় রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বর্তমানে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা করছেন তিনি। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিমল রায় এখজন নেশাখোর ব্যক্তি। নেশার টাকার জন্য প্রায় স্ত্রীকে মারধর করেন।

সংসার চালানোর জন্য কোনও কাজ করেন না। তাঁর স্ত্রী লোকের বাড়িতে রান্নার কাজ করেন। সম্প্রতি তিনি কাজের বেতন পেয়েছেন। গত শনিবার রাতে বিমল রায় স্ত্রীর কাছে নেশা করার জন্য বেতনের টাকা দাবি করেন। কিন্তু স্ত্রী টাকা দিতে অস্বীকার করলেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে শুরু করলে স্ত্রী চিৎকার শুরু করেন। স্ত্রীর চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসেন এবং বিমল রায় চম্পট দেয়। স্থানীয়রা দ্রৌপদী রায়কে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে এবং স্থানীয় রায়গঞ্জ থানায় খবর দেয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Next Post

বাড়ি বানিয়েও গৃহ প্রবেশ করা হল না! ফিরল কফিনবন্দি দেহ

Sun Nov 14 , 2021
বেঙ্গল এক্সপ্রেস নিউজঃ একটু বৃষ্টি পড়লেই টিনের চাল বেয়ে জল পড়ত ঘরের আনাচে কানাচে। ঝড় এলেও কখন যে উড়িয়ে নিয়ে যায়, এই ভয় তো ছিলই। ছোট বেলা থেকেই বাড়ির এই পরিস্থিতি দেখে বড় হয়েছেন। আর তাই অসম রাইফেলসে যোগ দিয়েই একটু একটু করে নিজেদের থাকার […]

আপনার পছন্দের সংবাদ